• Bangladesh National Cricket Team Jersey 2021

    ৳ 1,999.00 ৳ 1,600.00
    Add to cart
  • খাঁটি সরিষার তেল – ৫ লিটার

    ৳ 1,500.00 ৳ 1,200.00

    নিজস্ব তত্ত্বাবধানে জমি থেকে ভালো মানের সরিষা সংগ্রহ করে তেল তৈরী করা হয়
    সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে প্রস্তুত।
    কোন প্রকার রাসায়নিক ব্যাবহার করা হয় না।
    সঠিক ঝাঁজ।

    Add to cart
  • ডিজিটাল লুঙ্গি

    ৳ 1,200.00

    প্রাচীন লুঙ্গির দিন শেষ ডিজিটাল লুঙ্গির বাংলাদেশ। শাড়ি, লুঙ্গি, বাঙ্গালী যেন একই সুতোয় তিন ফোড়। নারীরা শাড়ি ছাড়া থাকতে পারলেও, পুরুষেরা লুঙ্গি ছাড়া থাকা অসম্ভব।
    তাই তো পুরুষদের লুঙ্গি নিয়ে চিন্তার অবসান করতে আমরা নিয়ে আসলাম ডিজিটাল লুঙ্গি।
    যা আমাদের এই শিল্প কে একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
    ডিজিটাল লুঙ্গির অন্যন্য বৈশিষ্ট্যগুলো —
    ★ ১০০% সুতি, কালার গ্যারান্টেড লুঙ্গি ।
    ★ সাড়ে পাঁচ হাত লুঙ্গির নান্দনিক ডিজাইনের সমাহার। যা সকল বয়স ও সাইজের মানুষ সহজেই পড়তে পারবে।
    ★ পড়তে ঝামেলাহীন ও সহজ , কুচিগুলো ফিক্সড দেওয়া তাই সর্বদাই গোছানো থাকে।
    ★ ভেলক্রো সিস্টেম। তাই লুঙ্গি খুলে যাওয়ার ভয় নেই এবং সহজেই চলাফেরা করা যায়।
    ★ পকেট সিস্টেম। যেখানে নিশ্চিতে আপনার মুল্যবান সামগ্রী রাখতে পারবেন।
    ★ আমাদের লুঙ্গি পড়তে অতন্ত্য আরামদায়ক যা আপনাকে রাখবে সতেজ ও চিন্তামুক্ত।

    Add to cart
  • Liverpool Away Soccer Jersey New Jersey Shirt

    ৳ 900.00

    Competitive Season: Bayern Munich 2020/21 Home Soccer JerseyItem
    Type: Jersey
    Sport Type: Soccer
    Gender: Men
    Material: Polyester
    Sleeve Length: Short
    Made in china

    Add to cart
  • মহিষের দুধের ঘি (৫০০ গ্রাম)

    ৳ 1,100.00

    মহিষের দুধের ঘিয়ের উপকারীতা:

    সর্দি-কাশি সারাতে, দুর্বলতা কাটাতে, ত্বকের সমস্যা দূর করতে মহিষের দুধের ঘি ব্যবহৃত হয়। এছাড়া মহিষের দুধের ঘি খেলে যে হরমোন নিঃসরণ হয়, এতে শরীরের সন্ধিগুলো ঠিক থাকে। এটি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ বলে অন্য খাবার থেকে ভিটামিন ও খনিজ শোষণ করে শরীরকে রোগ প্রতিরোধে সক্ষম করে তোলে।

    Add to cart
  • চিয়া সীড (Chia Seed)- ১ কেজি

    ৳ 3,900.00

    ১) চিয়া সীডে রয়েছে উচ্চমাএার এন্টিঅক্সিডেন্ট
    ২) চিয়া সীডে রয়েছে উচ্চমাত্রার প্রোটিন
    ৩) উচ্চমাত্রার ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড রয়েছে চিয়া সীডে
    ৪) হাড়ের সুস্থতায় চিয়া সীড
    ৫) রক্তের সুগার লেভেল কমাতে সাহায্য করে
    ৬) ত্বকের সংক্রমনের মাএা কমায়
    ৭) ওজন কমাতে সাহায্য করে

    Add to cart
  • ত্বীন ফল- ১ কেজি

    ৳ 3,000.00

    ত্বীন ফল (Fruit Tin)
    সুন্দর ও সুস্থ জীবনে ফলের বিকল্প নেই। তাই আমরা নিয়ে এসেছি একটি সুস্বাদু ,স্বাস্থ্যকর ও সুমিষ্ট মজাদার ফল । যে ফলের ব্যপারে পবিত্র কোরআন শরিফে আল্লাহ্‌ তা’য়ালা কসম করেছেন।
    উপকারিতাঃ
    ১. কোলেস্টেরল মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।
    ২. মেদ ও ওজন হ্রাসে সহায়তা করে।
    ৩. হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় এবং হৃদপেশি শক্তিশালী করে।
    ৪. শ্বাসযন্ত্র স্বাভাবিক করতে সাহায্য করে।যা শ্বাস-প্রশ্বাসের
    রোগীদের জন্য উপকারী।
    ৫. এটি ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ হওয়ায় হাড় শক্তিশালী করে।
    ৬. আমাদের শরীরে প্রসারিত ক্যান্সার কোষকে প্রতিরোধ করে।
    ৭. ডায়াবেটিস এর রোগীদের জন্য উপকারী ।

    Add to cart
  • NEEM OIL (নিমের তেল)-100ML

    ৳ 499.00

    নিমের তেলের বিস্ময়কর উপকারিতা:

    →চুলের যত্নে নিম তেলের ভূমিকা:

    ১। নিমেল তেল চুল পড়া ও চুল ভাঙা রোধ করে:

    প্রতিদিন কিছুটা পরিমাণ নিমের তেল নিয়ে মাথার ত্বক ও চুলে হালকা করে ঘষে ঘষে লাগিয়ে কিছুক্ষণের জন্য রেখে দিতে হবে এবং এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে চুল পড়া,চুল ভাঙা বন্ধ হবে এবং চুলের গোড়াও শক্তিশালী হয়ে উঠবে।

    ২। স্কাল্পের সংক্রমন জাতীয় সমস্যা ও খুশকি দূর করে

    ফাঙ্গাল ইনফেকশন হলে সাধারণত ত্বকে খুশকির সমস্য়া হয়ে থাকে। মাথার চুলে ও ত্বকে নিয়মিত নিম তেল ব্যবহারে খুশকি থেকে দূরে থাকা সম্ভব। এছাড়া মাথার স্কাল্পের যেকোনো ধরনের সংক্রমণ/ চুলকুনির সমস্যা কমাতেও নিম তেলের জুরি মেলা ভার। চুলে শ্যাম্পু করার সময় তাতে কয়েক ড্রপ নিম তেল মিশিয়ে নিয়ে মাথায় মেখে ২-৩ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে , তাহলেই সমস্য়া কমতে শুরু করবে । এভাবে ব্যবহারে উসকোখুসকো ও প্রাণহীন চুলও তার উজ্জ্বল্য ফিরে পেতে পারে।

    ৩। উকুন প্রতিহত:

    নিয়মিত নিম তেল ব্যবহারে উকুন তাড়ানো সম্ভব। যাদের মাথার তালুতে ব্রণের সমস্যা আছে তারাও এই তেল মাথায় দিতে পারে।

    →ত্বকের যত্নে নিম তেল

    ১। নিমের তেল ত্বকের দাগ দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে :

    নিম তেল ফ্যাটি এসিডে সমৃদ্ধ যার ফলে এটি সহজে ত্বকের সাথে মিশে যায় এবং সংকোচন-প্রসারণ সহজতর হয়! নিয়মিত নিম তেল ব্যবহার করে ত্বকের বলিরেখা ও বার্ধক্যজনিত যাবতীয় দাগ দূর করা সম্ভব। এটি ত্বককে নমনীয় করে তোলে, ত্বকের লাল দাগসমূহ দূর করে, ব্রণের ক্ষত সারিয়ে তোলে। ছোট খাটো কাটা বা ক্ষত সারাতেও নিম তেলের জুড়ি নেই।

    ২। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে নিমের তেল খুবই উপকারী:

    নিমের ভিটামিন ই ও ফ্যাটি এসিড ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে গভীরভাবে কাজ করে। যাদের ত্বক শুষ্ক তারা নিয়মিত এই তেল লাগালে সমস্য়া অনেকটাই কমে যায়। প্রতিদিন নারকেল তেল বা অলিভ অয়েলের সঙ্গে নিম তেল মিশিয়ে ভালো করে সারা শরীরে মালিশ করলেই দেখা যাবে ত্বক সুন্দর হয়ে উঠছে ।

    ৩। নিমের তেল ব্যবহারে ব্রণের প্রকোপ কমায়:
    নিম তেলের অ্যাসপিরিন জাতীয় উপাদান ব্রণ হওয়ার জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়াগুলোকে ধ্বংস করে। নিম তেলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় এটি ব্রণের সমস্য়া কমাতে কাজ করে। ব্রণ কমাতে কয়েক ফোঁটা নিম তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা ল্য়াভেন্ডর তেল মিশিয়ে ব্রণর উপর লাগাতে হবে।

    ৪। নিমের তেল ব্যবহারে ত্বকে তারুণ্য ধরে রাখে:

    নিমের তেলে আছে এন্টি অক্সিডেন্ট যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। এটি ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ সহজে পড়তে দেয় না। সময়ের সাথে সাথে কেউ যদি ত্বকের বয়স বাড়াতে না চায়, তাহলে নিয়মিত নিম তেল দিয়ে ত্বকের মাসাজ করতে হবে ! ফেসপ্যাকের সঙ্গে নিমের তেল মিশিয়েও লাগানো যায়! এভাবে ব্যবহারে ত্বক সজীব হয়ে উঠে, বলিরেখা কমে, সাথে সাথে স্কিন টানটান হয়। ফলে ত্বকের বয়স কম লাগে।
    ৫। অ্যাকজিমা প্রতিরোধ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে :

    নিম তেল ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রেখে অ্যাকজিমা প্রতিকার ও প্রতিরোধ করে। শরীরের যে জায়গায় একজিমা হয়েছে, সেখানে নিম তেল লাগালে যন্ত্রণা কমে।

    *বংশগত কারণে কারও অ্যাকজিমা হলে নিমের তেল তা পুরোপুরি সারিয়ে তুলতে সক্ষম নাও হতে পারে।

    **ভুলেও সরাসরি ত্বকের উপর নিম তেল ব্য়বহার করা যাবে না। সামান্য় গরম পানিতে কয়েক ড্রপ নিম তেল মিশিয়ে তা দিয়ে রোজ গোছল করলে রোগ কমতে শুরু করবে ।

    ৬। ত্বক ফর্সা করে ও হাইপারপিগমেন্টেশন দূর করে:

    নিমের তেলের ব্যবহার ত্বকে অতিরিক্ত মেলানিন তৈরিতে বাধা দেয়, আর মেলানিন কম থাকা মানে ত্বকে ফর্সাভাব বৃদ্ধি পাওয়া ! নিমের ফ্যাটি এসিড ত্বকে কোলাজেনের উৎপাদন বাড়ায় যার প্রভাবে স্কিন টোনের দ্রুত উন্নতি ঘটে ।
    ত্বকে মেলানিনের পরিমান বাড়লেই লক্ষণ বাড়ে হাইপারপিগমেন্টেশনের! নিয়মিত যদি সারা শরীরে নারকেল তেলের সঙ্গে নিম তেল মিশিয়ে লাগানো যায় তাহলে মেলানিনের মাত্রা কমে। আর মেলানিন কমলে স্বাভাবিক ভাবেই কমতে শরু করে হাইপারপিগমেন্টটেশনও।

    ৭। নিমের তেল কালচে আচিল দূর করে:
    ২-৩ ফোঁটা নিমের তেল পানিতে মিশিয়ে কালো আঁচিলে নিয়মিতভাবে লাগালে তা চিরতরে দূর হয়ে যায় !

    ৮। ত্বকের উন্মুক্ত ছিদ্র নিমের তেল দিয়ে বন্ধ করা সম্ভব:

    নিমের এন্টিব্যকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি প্রপার্টিজ উন্মুক্ত ছিদ্র বন্ধ করতে দারুন কাজে আসে। নারকেল তেলের সঙ্গে নিম তেল মিশিয়ে মুখে লাগালেই সমস্য়া কমতে শুরু করবে ।

    ৯।ত্বকের সংক্রমণের চিকিৎসা :

    অস্বাস্থ্যকর অবস্থার জন্য পায়ে অ্যাথলিট’স ফুটের মত ছত্রাকজনিত সমস্যা হতে পারে । আর এই রোগ হলে পায়ে যন্ত্রণা হয়ে থাকে। ত্বকের এই সমস্য়ার প্রকোপ কমাতে নিম তেলের সঙ্গে নারকেল তেল মিলিয়ে সংক্রমণের জায়গায় লাগাতে হবে । এমনটা রোজ করলে, অল্প দিনেই রোগ কমতে শুরু করে ।

    → নিমের তেল ওষুধ ও জন্মনিরোধক হিসেবে কাজ করে:

    নিম তেল একটি উৎকৃষ্ট মানের এন্টিসেপটিক! ডায়াবেটিস, আর্থ্রাইটিস ও উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসার জন্য যেসব ঔষধ গ্রহণ করা হয় সেগুলোতে নিমের তেল থাকে।

    নিম তেল একটি উত্তম প্রাকৃতিক জন্ম নিরোধকও । নিম তেল একটি শক্তিশালী শুক্রাণুনাশক হিসেবে কাজ করে। ভারতীয় বিজ্ঞানীরা দেখিয়েছেন যে, নিম তেল মহিলাদের জন্য নতুন ধরনের কার্যকরী গর্ভনিরোধক হতে পারে। এটি ৩০ সেকেন্ডের মধ্যেই শুক্রানু মেরে ফেলতে সক্ষম।

    → দাঁতের জন্য নিম তেল :

    নিম তেল ক্যাভিটি সৃষ্টিকারী জীবাণু ধ্বংস করে! পেস্টে নিমের তেল ব্যবহার এখন অনেক দেশে সমাদৃত এবং বিশ্বব্যাপী পরিব্যাপ্ত! নিয়মিত ব্যবহারে দাত ও মাড়ি মজবুত হয়!

    সংরক্ষনঃ

    ঠান্ডা ও অন্ধকার জায়গায় সংরক্ষণ করে রাখতে হয় !

    সতর্কতা:

    নিমের তেল বা অন্যান্য নিমের পণ্য যেমন নিমের পাতা বা নিমের চা গর্ভবতী অথবা গর্ভধারণে আগ্রহী মহিলা এবং শিশুদের খাওয়া উচিৎ নয়! নিমের তেলের অতিরিক্ত সেবন লিভার নষ্টে সাহায্য করতে পারে বলে কিছু লক্ষণ পাওয়া গেছে!

    *ত্বকে নিম তেল ব্যবহারের পূর্বে এক ফোটা তেল হাতের তালুর উপরিভাগে লাগিয়ে পরীক্ষা করে নেয়া ভালো! ২৪ ঘন্টার মধ্যে যদি কোনো এলার্জি (যেমন লাল হয়ে যাওয়া বা ফোলাভাব) এর লক্ষণ না দেখা যায় তবে নিশ্চিন্তে এটা শরীরের যে কোনো জায়গায় ব্যবহার করা যেতে পারে!

    Add to cart
  • জয়তুন তেল ২৫০ মিলি

    ৳ 799.00

    জয়তুন তেল বা Olive Oil এ অনেক গুরুত্বপূর্ণ উপাদান থাকে, যেগুলো আমাদের শরীরকে সুস্থ এবং সুন্দর রাখে। গবেষকরা দেখিয়েছেন খাবারে যাইতুন তেল ব্যবহারের ফলে:
    শরীরের ব্যাড ক্লোষ্টোরেল এবং গুড ক্লোষ্টোরেল নিয়ন্ত্রণ হয় ।
    জয়তুন তেলের আরেকটা গুণাবলি হল এটা পাকস্থলীর জন্য খুব ভালো।
    শরীরে এসিড কমায়, যকৃৎ (Liver) পরিষ্কার করে, যেটা প্রতিটি মানুষের ২/৩ দিনে একবার করে দরকার হয়।
    কোস্ট কাঠিন্য রোগীদের জন্য দিনে ১ চামচ (1 spoon) যাইতুন তেল অনেক অনেক উপকারী।
    গর্ভধারণ করার পর থেকেই পেটে জয়তুন তেল (Olive Oil) মাখলে কোন জন্মদাগ পড়ে না। এটা একটা পরীক্ষিত ব্যাপার
    গবেষকরা ২.৫ কোটি (25 million) লোকজনের উপর গবেষণা করে দেখিয়েছেন, প্রতিদিন ২ চামচ Extra Virgin Olive Oil জয়তুন তেল ১ সপ্তাহ ধরে খেলে, ক্ষতিকর এলডিএল (LDL) কোলেস্টেরল কমায় এবং উপকারী এইচডিএল (HDL) কোলেস্টেরল বাড়ায়।
    স্প্যানিশ (Spanish) গবেষকরা দেখিয়েছেন, খাবারে জয়তুন তেল ব্যবহার করলে ক্লোন ক্যান্সার (Colon cancer ) প্রতিরোধ হয়। আরও কিছু গবেষক দেখিয়েছ, এটা ব্যাথা নাশক (Pain Killer) হিসাবে কাজ করে।
    গোসলের পানিতে ১/৪ চামচ ব্যবহার করে গোসল করলে শরীরে শিথিলতা পাওয়া যায়।

    Add to cart
  • মরিয়ম ফুল (Flower of Maryam)

    ৳ 2,000.00

    মরিয়ম ফুল সম্পর্কে আশা করি অনেকেই জানেন। অত্যন্ত দূর্লভ এই ফুলের উপকারিতা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে এর ব্যবহার হয়ে আসছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে। বিশেষ করে গর্ভবতী নারীদের প্রসবকালীন সময়ে এই ফুলের ব্যবহার একরকম আবশ্যক। ঐতিহ্যবাহী ধাত্রীরা শত শত বছর ধরে প্রসবকালীন সময়ে মায়ের বেদনা লাঘব করার জন্য এই ফুলের ব্যবহার করছেন।
    >> মহানবীর যুগে প্রচলিত বিবি মরিয়মের ইতিহাস থেকে জানা যায় যে এই কুদরতি ফুলটি আল্লাহর রহমতে বেবি কন্সিভ করতে সহায়তা করে এবং লেবার পেইন কমাতে সাহায্য করে।

    >> শুধু আমাদের দেশেই নয়, পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই এর ব্যবহার হয়ে থাকে। ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন মনীষী এর ব্যবহারের উপর অত্যন্ত গুরুত্বারোপ করেছেন এবং বাতলে দিয়েছেন এর ব্যবহারের সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতিসমূহ। খ্রীষ্ট ধর্মের পবিত্র গ্রন্থ বাইবেলেও এর কথা বর্ণনা করা হয়েছে।
    >> এই ফুলকে হযরত ঈসা আঃ এর মায়ের নাম নামানুসারে ‘মরিয়ম ফুল বা মরিয়ম বুটি’, নবী সাঃ এর কন্যা ফাতিমার নামানুসারে “ফাতিমার হাত বা হ্যান্ড অব ফাতিমা” এবং এর বৈশিষ্ট্য অনুসারে ‘পুনরুত্থান উদ্ভিদ’ বলা হয়। কারণ এই ফুল দেখতে খটখটে শুকনো ও মরা মনে হয়। কিন্তু কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রাখলেই তরতর করে পাপড়ি মেলতে শুরু করে। অল্প সময়ের মধ্যেই ফুটন্ত ফুলের মতো তাজা আর পরিপূর্ণ প্রস্ফুটিত হয়ে যায়। এ এক আশ্চর্য ফুল।
    >> অধিকাংশ নারীই হজ্বে গিয়ে এই মরিয়ম ফুল নিয়ে আসেন। অথবা অন্যকে দিয়ে আনান। যেহেতু আমরা সরাসরি সৌদি আরব থেকে আজওয়া খেজুরসহ অন্যান্য আইটেম আমদানী করি তাই আমাদের কাছেও অনেকে চেয়েছেন। আপনাদের চাহিদা মেটাতে এবার সৌদি আরব থেকে আমরা এই পবিত্র ও আশ্চর্য উপকারী ফুল নিয়ে এসেছি।
    >> মরিয়ম ফুল ও বিজ্ঞান-
    মরিয়ম ফুল প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের গর্ভাবস্থায় এবং ডেলিভারির সময় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এর বৈজ্ঞানিক নাম হল আনস্ত্যাটিকা হিয়ারোচুনিচিকা (Anastatica Hierochuntica) । এটি সাহারা-আরবীয় মরুভূমিসহ মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপকভাবে পাওয়া যায়।
    >> উপাদান
    এই ফুলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, দস্তা এবং লোহা। বিশেষত, ক্যালসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম একসঙ্গে পেশী সংকোচন নিয়ন্ত্রণ করে এর কোন নেতিবাচক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই।
    >> কী কাজ করে?
    প্রসবকালীন সময় এই ফুল বিশেষ প্রক্রিয়ায় ব্যবহার করতে হয়। এতে প্রসূতি মায়ের প্রবস বদেনা লাঘব হয় এবং দ্রুত ও সহজে ডেলিভারী সম্পন্ন করা যায়।

    >> ব্যবহারের নিয়মঃ

    >> বাচ্চা জন্মের সময় ডেলিভারি পেইন উঠে তখন ফুলটিকে ডেলিভারি রুমে কোন খোলা বাসনে কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে (কুসুম গরম পানি না থাকলে ঠান্ডা পানি হলেও হবে, গরম পানি হলে বেশী ভাল)। ভিজালে ফুলটি আস্তে আস্তে ফুটতে থাকবে এবং যার ডেলিভারি হবে তার জড়ায়ুর মুখ খুলতে থাকবে এবং ব্যাথা বাড়বে। যতই ভিজতে থাকবে ও প্রষ্ফুটিত হতে থাকবে আল্লাহ্ তাআলার দয়ায় মরিয়ম বিবির ফুলের বরকতে বাচ্চার জন্ম খুব সহজ ভাবেই হবে।
    >> বেবী হয়ে গেলে পানি থেকে ফুলটি উঠিয়ে ফেলতে হয়।এবং এই ফুলের কাজ শেষে পানি থেকে উঠিয়ে রাখলে আবার আগের মত ছোট হয় কারন এটি একাধিক বার ব্যবহারযোগ্য।

    >> আর যারা বাচ্চা কন্সিভ করতে চান তারা শেকড় ভিজিয়ে রেখে তার পানিটা তাহাজ্জুদ নামাজের আগে এবং পরে নিয়ত করে খাবেন এবং এটি অবশ্যই ফযরের নামাজ পড়ার আগেই খেয়ে নিতে হবে।

    বিদ্র: আমরা ডাক্তার না আমরা পোস্টে কোথাও বলিওনি যে ডাক্তারের কাছে যাওয়া লাগবে না এই ফুল দিয়েই চিকিৎসা হয়ে যাবে! আমরা আধুনিক হয়ে গেছি বলে বিশ্বাস মরে যাবে এমনতো নয়! আপনার বিশ্বাস হলে এবং প্রয়োজন মনে হলে ফুলটি আমাদের কাছ থেকে সংগ্রহ করবেন আর বিশ্বাস না হলে এড়িয়ে যান।

    Add to cart
  • কালোজিরা মধু

    ৳ 1,600.00

    সবচেয়ে ভালো মানের মধু কালোজিরা মধু।

    মানের দিক থেকে সুন্দরবনের সবচেয়ে ভালো ও সুস্বাদু কালোজিরা মধু ।

    তবে কালোজিরা মধুর চাহিদা বেশী থাকায় সবসময় এটা পাওয়া যায়না ।

    প্রাকৃতিক ও ভেষজ গুনে ভরা স্বুসাদু কালোজিরা ফুলের মধু মানব দেহের জন্য খুবই উপকারী,
    শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি সহ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে এর ভূমিকা অতুলনীয়

    Add to cart
  • প্রাকৃতিক হরলিক্স-১ কেজি

    ৳ 1,000.00

    এর গুণাগুণ:
    ১. কোলেস্টেরল কমায়।
    ২. পেটের জ্বালা-পোড়া কমায়।
    ৩. হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।
    ৪. রক্তের সুগার ধীরে ধীরে বাড়ে, ফলে ডায়াবেটিক রোগের জন্য উপকারী।
    ৫. উচ্চ রক্তচাপ কমায়।
    ৬. কিডনি রোগীদের জন্য উপকারী।
    ৭. অসুস্থ, দুর্বল রোগীদের শক্তিদায়ক পথ্য হিসেবে।
    ৮. শিশুদের প্রয়োজনীয় আঁশ, আমিষ এবং খনিজ পদার্থ যোগান দেয়।
    উপাদান-
    যব , চাল , ছোলার গুড়া ও অন্যান্য উপাদান

    শিশু খাদ্য:
    চাল বা গমের সুজির পুষ্টিকর বিকল্প হিসেবে বাচ্চাদের রান্না করে খাওয়ানো যায়। আঁশ জাতীয় খাবার, ভিটামিন এবং মিনারেলের ঘাটতি মেটাতে উঠতি বয়সী শিশু-কিশোরদের হরলিক্সের বিকল্প হিসেবেও দেয়া যায়।

    Add to cart
  • সুন্দরবনের খাঁটি পদ্ম মধু-১ কেজি

    ৳ 1,200.00

    সবচেয়ে ভালো মানের মধু পদ্ম মধু।

    মানের দিক থেকে সুন্দরবনের সবচেয়ে ভালো ও সুস্বাদু পদ্ম মধু ।

    তবে পদ্ম মধুর চাহিদা বেশী থাকায় সবসময় এটা পাওয়া যায়না

    Add to cart
  • খাঁটি তিশির তেল (২৫০ মিলি)

    ৳ 700.00

    Flax seeds বা তিশি হচ্ছে একটি আঁশ সমৃদ্ধ, প্রোটিন,ক্যলসিয়াম, এন্টি অক্সিডেন্টস, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড এবং মিনারেলের একটি অসাধারণ সমন্বয়।

    এটাতে ভিটামিন বি কপ্লেক্স, মেঙ্গানিজ ও ম্যাগনেসিয়াম প্রচুর পরিমাণে থাকে। তিশি আমাদের শরীরে এন্টি অক্সিডেন্টের কাজ করে, দেহকে শক্তিশালী রাখে এবং সহজে ক্লান্ত হতে দেয় না। চুল পড়া বন্ধ করে, খুশকি দূর করে, চুল কালো করে, ত্বক উজ্জ্বল ও ফর্সা করে, পেটের মেক কমায়, হরমোনের ভারসাম্য রক্ষা করে, ইহা এন্টি অক্সিডেন্ট হিসাবে কাজ করে, ক্যান্সার প্রতিরোধ করে, হজমকারক।

    এতে প্রচুর ওমেগা-৩ এসিড থাকায় তা হ্বিদপিন্ডকে শক্তিশালী করে।

    Add to cart
  • প্রাকৃতিক স্লিমিং পাউডার (৫০০ গ্রাম)

    ৳ 1,000.00

    উপকারিতাঃ * দেহের অতিরিক্ত চর্বি ঝরায় * কোলেস্টরেলের মাত্রা কমায় * ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে * রক্ত চাপ কমায় ।
    .
    উপাদানঃ ১. যোয়ান ২. মেথি ৩. কালোজিরা ৪. হলুদ ৫. সোনাপাতা ও অন্যান্য
    .
    ব্যবহার: প্রতিরাতে ঘুমানোর আগে দেড় চামচ পাউডার কুসুম গরম পানিতে গুলিয়ে খাবেন।

    Add to cart
  • কোরানো নারকেল – ৫০০ গ্রাম

    ৳ 280.00

    ১. স্বাস্থ্যসম্মত

    ২. বাছাইকৃত

    ৩. হাতে বানানো

    Add to cart
  • রাইস বার্ন অয়েল – ১ লিটার

    ৳ 200.00

    রাইস ব্র্যান অয়েলে রয়েছে ক্যান্সার প্রতিরোধক গামা ওরাইজেনল, যা শক্তিশালী এন্টি অক্সিড্যান্ট হিসেবে একমাত্র চালের গুড়োতেই পাওয়া যায়। রাইস ব্রান অয়েল প্রাকৃতিক ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে সমৃদ্ধ এবং শতভাগ কোলেস্টেরলমুক্ত।

    এতে ভিটামিন এ, ডি, ই ও ওমেগা ৩ আছে, যা রক্তের LDL(মন্দ কোলেস্টেরল) মাত্রা কমিয়ে এবং HDL (ভালো কোলেস্টেরল) মাত্রা বাড়িয়ে হূদেরাগের ঝুঁকি প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করে।

    আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশন (AHA) এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) কর্তৃক নির্ধারিত স্বাস্থ্যসম্মত তেলের সর্বাপেক্ষা নিকটবর্তী মাত্রায় অবস্থান করছে রাইস ব্রান অয়েল।

    Add to cart